29 C
Dhaka
Thursday, July 25, 2024

বিষাক্ত মদপানে নারীসহ ৩৭ জনের মৃত্যু

ভারতের তামিলনাড়ুতে বিষাক্ত মদপানে নারীসহ ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন আরও ১০ জন। আরও কয়েকজন বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাদের অবস্থাও খুব একটা ভালো নয়। তাই মৃতের সংখ্যা বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, গত কয়েক দিনে কাল্লাকুরিচিতে বিষাক্ত মদপানকারীরা একে একে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে আসতে থাকে। যা রীতিমতো রাজ্যজুড়ে আতঙ্ক ছড়ায়।

কেন্দ্রীয় সরকার তাৎক্ষণিক সিআইডি ও অন্যান্য সংস্থাকে তদন্তের নির্দেশ দেয়।

প্রাথমিক তদন্তে এক মদ বিক্রেতাকে শনাক্ত করা হয়েছে। তাকে গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে ২০০ লিটার অবৈধ মদ।

আরো পড়ুন  ইরানের নির্বাচনে কে হবেন নতুন প্রেসিডেন্ট?

মৃতদের পরিবারের অভিযোগ, ওই মদ খাওয়ার পরই বমি করতে শুরু করেন তারা। শুরু হয় পেটে ব্যথা। দ্রুত হাসপাতালে নিলেও তাদের বাঁচানো যায়নি।

পুলিশ বলছে, ওই মদে মিথানল বেশি মাত্রায় মেশানো হয়েছিল। এ কারণেই তা বিষে পরিণত হয়। বিক্রেতা অবৈধভাবে তা বিক্রি করে। ঠিক কতজন তা পান করেছে তা এখনো নিশ্চিত না।

এ বিষয়ে তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এম কে স্টালিন এক্স-এ লিখেছেন, ‘কাল্লাকুরিচিতে ভেজাল মদ খেয়ে মানুষের মৃত্যুর খবরে আমি মর্মাহত। এই অপরাধে জড়িতদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।’

আরো পড়ুন  ১৭ বছর পর ২০২৬ সালের হজ যে কারণে বেশি প্রশান্তিময় হতে যাচ্ছে

এদিকে মদকাণ্ড রাজ্যজুড়ে তোলপাড়। কাল্লাকুরিচি জেলার পুলিশ সুপার সময় সিং মিনাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। জেলার কালেক্টর শ্রাবণ কুমার জাটাবথকে বদলি করা হয়েছে।

সমালোচনার ঝড় উঠেছে রাজনীতির মাঠে। বিরোধীরা ক্ষমতাসীনদের তীব্র ভাষায় আক্রমণ করছেন। তারা গত বছর ভিলুপুরম ও চেঙ্গলপাট্টু জেলায় বৈআইনিভাবে উৎপাদিত মদ খেয়ে কমপক্ষে ২২ জনের মৃত্যুর বিষয়টিও তুলে আনছেন।

বিজেপি নেতা কে আন্নামালাই তামিলনাড়ু বিষ মদকাণ্ড নিয়ে এম কে স্টালিনের নেতৃত্বাধীন ডিএমকে সরকারের নিন্দা করেছেন। নিহতদের পরিবারের কান্নাকাটির একটি ভিডিও শেয়ার করে তিনি লিখেছেন, স্বজন হারানোর বেদনার কান্না দেখে হৃদয় ভারাক্রান্ত। গত বছর বিষমদের কাণ্ড থেকে শিক্ষা নেওয়া হয়নি। এর ফলে আজ এতজন মারা গেলেন।

আরো পড়ুন  এবারের হজেই পরীক্ষামূলকভাবে উড়ন্ত ট্যাক্সি চালাবে সৌদি আরব

তামিলনাড়ুর গভর্নর আর এন রবিও সরকারের কড়া সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেন, ‘আমাদের রাজ্যের বিভিন্ন অংশ থেকে প্রতিবারই অবৈধ মদ খাওয়ার কারণে মর্মান্তিক মৃত্যুর খবর পাওয়া যাচ্ছে। অবৈধ মদ উৎপাদন এবং সেই মদ খাওয়া প্রতিরোধের ক্ষেত্রে সরকারের ত্রুটি প্রতিফলিত হচ্ছে। এটি একটি গুরুতর উদ্বেগের বিষয়।’

সর্বশেষ সংবাদ