26 C
Dhaka
Wednesday, June 19, 2024

ইউটিউব দেখে নিজ ঘরেই জালনোট বানাতেন তারপর…

ইউটিউব দেখে নিজ ঘরেই জালনোট বানানো শুরু করেন হৃদয় মাতব্বর (২২) নামের এক যুবক। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দিয়ে জালনোট বেচতেন তিনি। এবার ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে বিপুল পরিমাণ জালনোট বাজারে ছড়ানোর প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন এই যুবক। অবশেষে র‌্যাবের জালে ধরা পড়েছেন তিনি।

পবিত্র ঈদ-উল-আযহা’কে কেন্দ্র করে এরূপ বেশকিছু জাল নোট প্রস্তুতকারী চক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে বলে র‌্যাব গোয়েন্দা সূত্রে জানতে পারে।

বৃহস্পতিবার (৬ জুন) দিবাগত রাত ১টার দিকে রাজধানীর শ্যামপুর থানাধীন পশ্চিম ধোলাইপাড় এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। র‌্যাব-৩ এ স্টাফ অফিসার (মিডিয়া) সহকারী পুলিশ সুপার মো. শামীম হোসেনের সই করা বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানা যায়।

আরো পড়ুন  ঝড় ও শিলাবৃষ্টির আশঙ্কা, থাকবে ৩ দিন

হৃদয় শরীয়তপুরের ডামুড্যা উপজেলার বুড়িরহাট এলাকার মোতালেব মাতব্বরের ছেলে। বর্তমানে তিনি শ্যামপুর থানাধীন পশ্চিম ধোলাইপাড়ে ভাড়া বাসায় বসবাস করে আসছিলেন।

র‌্যাব আরও জানায়, হৃদয়কে আটকের সময় তার কাছ থেকে জালনোট তৈরিতে ব্যবহৃত একটি সিপিইউ, একটি মনিটর, একটি প্রিন্টার, একটি কী-বোর্ড, একটি মাউস, একটি রাউটার, দুটি মাল্টিপ্লাগ, একটি পেপার কাটার, ৯টি ভুয়া জাতীয় পরিচয়পত্র, তিনটি ভুয়া ভারতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি এবং ৬০ হাজার ৭০০ টাকা মূল্যমানের ৬০২টি ১০০ টাকার ও একটি ৫০০ টাকার জালনোট পাওয়া যায়।

আরো পড়ুন  তিস্তার সংস্কারের নামে কাটা হচ্ছে ৪ লাখ গাছ!

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হৃদয় জানান, তিনি আগে থেকেই কম্পিউটারে পারদর্শী ছিলেন। ধোলাইপাড় এলাকার একটি কম্পিউটারের দোকানে কাজ করতেন। ইউটিউব দেখে জালনোট তৈরিতে পারদর্শিতা অর্জন করেন হৃদয়। পরবর্তীতে তিনি কম্পিউটার, প্রিন্টার, পেপার কাটার এবং জালটাকা তৈরির কাঁচামাল সংগ্রহ করে নিজ ঘরে জাল নোট ছাপানোর কাজ শুরু করেন।

র‌্যাব আরও জানায়, হৃদয় বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে বিজ্ঞপানের দিয়ে জালটাকা পাইকারি ও খুচরা বিক্রেতা সংগ্রহ করেন। আসন্ন ঈদুল আজহা ঘিরে বিপুল পরিমাণ জালনোট বাজারে সরবরাহ করার প্রস্তুতি নিয়েছিলেন তিনি।

আরো পড়ুন  পাসপোর্ট থেকে ‘ইসরাইল ছাড়া’ শব্দ মুছে ফেলা দুঃখজনক: সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী

এছাড়া হৃদয় দেশি ও বিদেশি ভুয়া জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরি করে বিভিন্ন অপরাধী চক্রের কাছে বিপুল পরিমাণ অর্থের বিনিময়ে বিক্রি করে আসছিলেন। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

সর্বশেষ সংবাদ