29 C
Dhaka
Sunday, June 16, 2024

বিমানবন্দরে কঙ্গনাকে চড় মেরে সাসপেন্ড হওয়া কে এই নারী কনস্টেবল

লোকসভা নির্বাচনে হিমাচল প্রদেশের মান্দি আসন থেকে বিজেপির হয়ে সদ্য সংসদ সদস্য (এমপি) নির্বাচিত হয়েছেন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত। গত বৃহস্পতিবার তিনি চণ্ডীগড় বিমানবন্দর থেকে দিল্লি আসার পথে বিমানবন্দরে থাকা সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্সের (সিআইএসএফ) নারী কনস্টেবল কুলবিন্দর কউর তাকে চড় মারেন। সূত্র: এনডিটিভি, হিন্দুস্তান টাইমস

এ ঘটনার পরে সাসপেন্ড করা হয় সেই নারী কনস্টেবলকে। ঘটনা তদন্তে একটি কমিটিও গঠন করেছে সিআইএসএফ। সেই সঙ্গে কুলবিন্দরের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ধারা ৩২৩ (স্বেচ্ছায় আঘাত করা) এবং ৩৪১ (ভুলভাবে সংযম) এর অধীনে মামলা করা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। বলা হচ্ছে, কঙ্গনাকে চড় মারার পর এই প্যারামিলিটারি কনস্টেবল বলেছেন, ‘কৃষকদের অসম্মান’ করার জন্য বলিউড তারকাকে চড় দিয়েছেন তিনি।

আরো পড়ুন  জমির দখল নিতে হুলস্থূল, চাঁদের মালিক কে?

ভারতে ২০২০-২১ সালের কৃষক বিক্ষোভের সময় আন্দোলনে অংশ নেওয়া পাঞ্জাবের নারীদের নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন কঙ্গনা। সে কারণেই তার ওপর ক্ষোভ ছিল পাঞ্জাবের বাসিন্দা কুলবিন্দরের। সেই ক্ষোভ থেকেই বলিউড তারকাকে তিনি চড় মেরেছেন বলে অভিযোগ।

৩৫ বছর বয়সি কনস্টেবল কুলবিন্দর কউর পাঞ্জাবের সুলতানপুর লোধির বাসিন্দা। কথিত চড় মারার ঘটনার পর একটি ভিডিওতে কুলবিন্দরকে বলতে শোনা যায়, তার মা-ও বিক্ষোভকারীদের একজন ছিলেন।

কুলবিন্দর কউর ২০০৯ সালে সিআইএসএফে যোগ দেন। দুই বছর ধরে তিনি চণ্ডীগড় বিমানবন্দরে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। ২০২১ সাল থেকে তিনি চণ্ডীগড় বিমানবন্দরে বিমান চলাচল নিরাপত্তা বাহিনীর দলে কাজ করছেন। তার স্বামীও সিআইএসএফের সদস্য। এই দম্পতি দুই সন্তানের বাবা-মা। কুলবিন্দরের ভাই শের সিং কৃষকনেতা। তিনি কিষান মজদুর সংঘর্ষ্‌ কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক।

আরো পড়ুন  চুক্তি ছাড়াই শেষ যুদ্ধবিরতি আলোচনা, রাফাতে ব্যাপক হামলা ইসরায়েলের

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, কুলবিন্দরের বিরুদ্ধে এর আগে কখনও কোনো ধরনের অভিযোগ আসেনি, বাহিনী থেকে তিনি কখনও কোনো শাস্তিও পাননি। তার স্বামীও চণ্ডীগড় বিমানবন্দরেই কর্মরত আছেন।

কঙ্গনা রানাওয়াত এক্স-এ (সাবেক টুইটার) এক ভিডিও বার্তায় অভিযোগ করেন, নিতাপত্তা তল্লাশি শেষ করে বের হওয়ার পর তাকে এসে চড় মারেন কুলবিন্দর। তার ভাষ্য, ‘তাকে জিজ্ঞেস করি, আমাকে চড় মেরেছেন কেন। তিনি বলেন, “আমি কৃষকদের আন্দোলন সমর্থন করি”।’

বিজেপির সদ্য নির্বাচিত এই এমপির ভাষ্যমতে কুলবিন্দর কউর বলেন, কৃষক বিদ্রোহের সময় কঙ্গনার করা ‘১০০ রুপি’ মন্তব্যের জন্য তিনি অভিনেত্রীর ওপর নাখোশ ছিলেন। কৃষক আন্দোলন চলাকালীন কঙ্গনা একবার বলেছিলেন, ১০০ টাকার জন্য দিল্লির রাস্তায় বসে রয়েছেন কৃষকরা। সেই পুরোনো মন্তব্যের জন্যই কঙ্গনাকে চড় মেরেছেন তিনি।

আরো পড়ুন  কত বছর বয়সে পঞ্চম বিয়ে করলেন মিডিয়া মোগল রুপার্ট

কুলবিন্দর বলেন, ‘তিনি বলেছিলেন, কৃষকরা ১০০ রুপির জন্য ওখানে বসে আছে। তিনি [কঙ্গনা] কি [১০০ রুপির জন্য] ওখানে গিয়ে বসে থাকতেন? উনি যখন এ কথা বলেন, তখন আমার মা ওখানে বসে আন্দোলন করছিলেন।’

২০২০ সালের ডিসেম্বরে এক্সে ওই ‘১০০ রুপি’ মন্তব্য করেছিলেন কঙ্গনা। বলিউড তারকা ওই পোস্টে দাবি করেন, এক বয়স্ক নারী তাকে বলেছিলেন যে ১০০ রুপি দিলে তিনি ‘আসবেন’—অর্থাৎ টাকার বিনিময়ে আন্দোলন করবেন।

সে সময় দিল্লির শিখ গুরুদুয়ারা ম্যানেজমেন্ট কমিটির প্রধান মাঞ্জিদার সিং সিরসা বলেছিলেন, কঙ্গনাকে এক সপ্তাহের মধ্যে ‘নিঃশর্ত ক্ষমা’ চাইতে হবে। পরে এ বলিউড তারকা ওই পোস্ট ডিলিট করে ফেলেন।

সর্বশেষ সংবাদ