29 C
Dhaka
Thursday, July 25, 2024

পিচের মাটি খাওয়ার কারণ জানালেন রোহিত

প্রায় দেড় যুগের অপেক্ষা ঘুচিয়ে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে ভারতকে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা জিতিয়েছেন রোহিত শর্মা। ২৯ জুন রোমাঞ্চকর ফাইনালে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারানোর পর পিচের মাটি মুখে পুরেছিলেন ভারত অধিনায়ক। যা নিয়ে ক্রিকেটপ্রেমীদের মনে তৈরি হয়েছে কৌতুহল। সমর্থকদের অবশ্য বেশিক্ষণ অপেক্ষায় রাখেননি রোহিত। জানিয়েছেন তার মাটি খাওয়ার কারণ।

বিশ্বকাপ জয়ের পর ক্যারিবিয়ানে ট্রফি নিয়ে আনুষ্ঠানিক ফটোসেশন করেন রোহিত। সে সময় চ্যাম্পিয়ন হওয়ার অনুভূতি প্রকাশ করেন তিনি। কথা বলেন, পিচের মাটি মুখে নেয়া নিয়েও।

আরো পড়ুন  মারা গেলেন আর্জেন্টিনাকে প্রথম বিশ্বকাপ জেতানো কোচ

ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) মঙ্গলবার (২ জুলাই) প্রকাশিত ভিডিওতে রোহিত বলেন, ‘কোনো কিছু আগে থেকে ঠিক করা ছিল না। আমার যেমন মনে হয়েছে, তেমন করেছি। উপভোগ করছিলাম মুহূর্তটা। ওই পিচ আমাদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দিয়েছে। এই মাঠ, এই পিচ আমি ভুলতে পারব না। তাই এর একটা অংশ আমি নিজের কাছে রাখতে চেয়েছিলাম। এই মুহূর্তগুলো খুবই স্পেশাল। আমার স্বপ্ন সত্যি হয়েছিল। আমি কিছু একটা নিয়ে যেতে চাইছিলাম। সেই কারণেই মাটি খেয়েছিলাম।’

আরো পড়ুন  সাংবাদিকের ফোন কেড়ে পুলিশকে দিলেন সাকিব, যা বললেন প্রত্যক্ষদর্শী

এর আগে গত বছর ওয়ানডে বিশ্বকাপ জয়ের খুব কাছে ছিল ভারত। টানা ১০ ম্যাচ অপরাজিত থাকার পর ফাইনালে উঠেছিল তারা। কিন্তু শিরোপার মঞ্চে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে স্বপ্ন ভেঙে যায়। দলকে এক যুগ পর ওয়ানডে বিশ্বকাপের ট্রফি জেতানো থেকে বঞ্চিত হন রোহিত। এরপরের সময়টা তার কেটেছে মনের সঙ্গে যুদ্ধ করে। বিশেষ করে আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের নেতৃত্বও হারিয়েছিলেন।

তবে সব দুঃস্মৃতি পেছনে ফেলে অবশেষে ভারতকে একটি ট্রফি এনে দিতে পেরেছেন তিনি। প্রোটিয়াদের হারানোর পর বাঁধভাঙা উল্লাসে ফেটে না পড়ে শুয়ে পড়েছিলেন মাঠে। সে মুহূর্তের একটি ছবিটা ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক মাধ্যমে।

আরো পড়ুন  দেশে ফিরে তাসকিনের সরল স্বীকারোক্তি

ওই মুহূর্ত নিয়ে রোহিত বলেন, ‘এই ছবিটাই বুঝিয়ে দেয় আমার মনের মধ্যে কী চলছে। অনেক কথা বলতে ইচ্ছা করছে, কিন্তু কিছুই বলতে পারছি না। আমি বোঝাতে পারব না শনিবারটা (২৯ জুন) আমার কাছে কী। আমি সে সব ভাগ করে নেব। কিন্তু এখন আমি কোটি কোটি মানুষের মতো স্বপ্নের জগতে।’

সর্বশেষ সংবাদ