29 C
Dhaka
Sunday, June 16, 2024

শেষ কর্মদিবসে বেআইনিভাবে দলিল রেজিস্ট্রি

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে শেষকর্ম দিবসে বেআইনিভাবে জমি রেজিস্ট্রি করানোর অভিযোগ উঠেছে সাবরেজিস্ট্রার শিরিন আকতারের বিরুদ্ধে। মিথ্যা তথ্য দিয়ে নির্ধারিত সময়ের পর নয় বিঘা জমির দলিল রেজিস্ট্রি করেছেন দেবীগঞ্জের এই সাবরেজিস্ট্রার।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) দেবীগঞ্জ পৌরসভার নতুনবন্দর এলাকার নব্বই বছর বয়সী জাহেদ আলীকে তার মেয়েরা জমি রেজিস্ট্রি করার জন্য হুইলচেয়ারে বসিয়ে সাবরেজিস্ট্রারের কার্যালয়ে নিয়ে যান। অথচ তিনি বার্ধক্য ও পক্ষাঘাতজনিত চলাফেরা ও কথা বলতে পারেন না। জাহেদ আলীর অন্যান্য ওয়ারিশরা প্রথম থেকে বিষয়টির প্রতিবাদ জানিয়ে আসছিলেন।

নিয়ম অনুযায়ী সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৩টার মধ্যে জমি রেজিস্ট্রি কার্যক্রম সম্পন্ন করতে হবে। অথচ সাবরেজিস্ট্রার সেই নিয়মের বাইরে গিয়ে আনুমানিক সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় জমি রেজিস্ট্রি সম্পন্ন করেন। যার দলিল নম্বর ১৪১৮। অফিসের সিসি ক্যামেরার ফুটেজে তা সংরক্ষিত আছে।

আরো পড়ুন  মায়ের চোখের সামনে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হলো মেয়ে

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে জাহেদ আলীর বড় ছেলে মৃত রেজানুর হাসান মঞ্জুর মেয়ে শাহনাজ পারভীন বলেন, আমাকে আমার বাবার হক থেকে বঞ্চিত করে আমার সাত ফুপু নিজেদের নামে জমি লিখে নিল। আমি সাবরেজিস্ট্রারের নিকট এই বিষয়ে লিখিত অভিযোগ দিয়েছিলাম। কিন্তু এরপরও অফিস টাইম শেষে একজন ভারসাম্যহীন ব্যক্তিকে দিয়ে জমি রেজিস্ট্রি করে নেওয়া হলো।

সন্ধ্যা সাতটার দিকে সাবরেজিস্ট্রার শিরিন সুলতানা অফিস ত্যাগ করার সময়ে গণমাধ্যম কর্মীদের প্রশ্নের মুখে বলেন, আপনারা আমার জেলা রেজিস্ট্রারের কাছে কমপ্লেইন করেন। আমি থানায় এবং ইউএনও স্যারের সঙ্গে কথা বলেছি। দাতা রাজি ছিল তাই জমি রেজিস্ট্রি হয়েছে।

এদিকে, দলিল লেখক সমিতির সভাপতি শহিদুল ইসলাম বলেন, দুপুরেও জাহেদ আলীর মেয়েরা সাবরেজিস্ট্রারের সঙ্গে দেখা করেন। কিন্তু তখন তাদের চলে যেতে বলা হয়।

আরো পড়ুন  নরসিংদীতে বজ্রপাতে মা-ছেলেসহ ৪ জনের মৃত্যু

ঘটনাস্থলে থাকা দেবীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক রবিউল ইসলাম বলেন, জোর করে জমি রেজিস্ট্রি নেওয়া হচ্ছে এমন অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা এখানে এসেছিলাম সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে। এসে দেখি দলিল রেজিস্ট্রি সম্পন্ন হয়েছে।

জাহেদ আলীর নাতনি শাহনাজ পারভীন অভিযোগ করে বলেন, এই পুরো ঘটনায় সাব রেজিস্ট্রারকে সহযোগিতা করেন দলিল লেখক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও সদ্য উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত মঞ্জুরুল ইসলাম মনু। তিনি দলিলটি সম্পাদন করেন।

পুলিশের উপস্থিতিতে গণমাধ্যম কর্মীরা জমির দাতা জাহেদ আলীর সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তার মেয়েরা বাধা দেন। এরপর সেখানে দলিল লেখক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল ইসলাম মনু গণমাধ্যম কর্মীদের বাধা দিয়ে নিজেকে বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি পরিচয় দেন। এরপর গণমাধ্যম কর্মীদের উদ্দেশ করে বলতে থাকেন, সরকার আমাকে লাইসেন্স দিয়েছে কীসের জন্য, আমাকে আইন শিখতে হবে?

আরো পড়ুন  সমুদ্র সৈকতে ভেসে আসছে বিষধর সাপ

ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকা দলিল লেখক সমিতির সভাপতি শহিদুল ইসলাম বলেন, দুপুরে তারা একবার এসেছিলেন কিন্তু সাবরেজিস্ট্রার ফিরিয়ে দিয়েছেন। পরে সন্ধ্যায় সেই জমি রেজিস্ট্রি হয়। এ ছাড়া বিকেল ৩টার পর কোনোভাবেই জমি রেজিস্ট্রি করতে পারবেন না সাবরেজিস্ট্রার।

এ বিষয়ে জানতে পঞ্চগড় জেলা রেজিস্ট্রার রেজাউল করিম বকশির মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করলেও ফোনটি রিসিভ হয়নি।

অভিযুক্ত শিরিনা আক্তার বোদা সাবরেজিস্ট্রি অফিসের রেজিস্ট্রার হিসেবে কর্মরত আছেন। দেবীগঞ্জে সাবরেজিস্ট্রার না থাকায় সেখানকার অতিরিক্ত দায়িত্বে ছিলেন তিনি এবং গত বৃহস্পতিবার দেবীগঞ্জ সাবরেজিস্ট্রি অফিসে ছিল তার শেষ কর্মদিবস।

উল্লেখ্য, জাহেদ আলী বার্ধক্য ও পক্ষাঘাতজনিত স্বাভাবিক চলাফেরা ও কথা বলতে পারেন না। ঘটনার সময় তাকে জমি রেজিস্ট্রির বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি কোনো জবাব দিতে পারেননি।

সর্বশেষ সংবাদ