29 C
Dhaka
Thursday, June 20, 2024

আসামির বিয়ে, পুলিশের খবর নেই

আসামির বিয়ে, তবুও পুলিশের খবর নেই। বরং ঢাকঢোল পিটিয়ে মহাসমারোহে চলছে বিয়ের আয়োজন। বরকে শুভেচ্ছা জানিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে বিশাল তোরণ।

সোমবার (২৭ মে) দুপুরে যাত্রীর বিশাল বহর নিয়ে কনের বাড়ি যান বর। রোববার রাতে তার নিজ বাড়িতে হয় গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান।

এ বিয়ের বর জসিম উদ্দিন একটি মামলার আসামি। পুলিশের খাতায় পলাতক। তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। অথচ নিজ বাড়িতে জাঁকজমক করে বিয়ের আয়োজন করেছেন। এই ঘটনা ঘটেছে সিলেটের জালালাবাদ থানার মানসীনগর গ্রামে।

আরো পড়ুন  চেয়ারম্যান প্রার্থীর লিফলেটে প্রধানমন্ত্রী ও আইনমন্ত্রীর ছবি

জানা যায়, গত ১৭ মে মানসীনগর গ্রামে একটি সালিশ বৈঠককে ঘিরে দুপক্ষের মারামারি হয়। এ মারামারির ঘটনায় একই গ্রামের সৈয়দ মিয়া বাদী হয়ে জালালাবাদ থানায় একটি মামলা করেন। মামলায় ২২ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরও ১৫/২০ জনকে আসামি করা হয়। জসিম উদ্দিন এই মামলার ১৮ নম্বর আসামি।

এই মামলার বাদী সৈয়দ মিয়া অভিযোগ করে বলেন, মামলার আসামিরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করছে না। এরমধ্যে সোমবার এক আসামির বিয়ে করছেন। কাল থেকে তার বাড়িতে ঢাকঢোল বাজিয়ে বিয়ের আয়োজন চলছে। অন্যান্য আসামিরাও সেখানে জড়ো হয়েছেন। বিষয়টি একাধিকবার পুলিশকে জানালেও তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

আরো পড়ুন  বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নারী শ্রমিককে যৌন হয়রানি

তিনি বলেন, আসামির বিয়ের বিষয়টি গতরাতে আমি মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তাকে জানাই। এরপর থেকেই তার ফোন বন্ধ পাই। সোমবার দুপুরে আসামি বর যাত্রী নিয়ে কনের বাড়ি চলে যাওয়ার পর তদন্তকারী কর্মকর্তা আমাকে ফোন দিয়ে জানান, তিনি আসামিকে ধরতে অভিযানে যাচ্ছেন।

তবে এমন অভিযোগ অস্বীকার করে জালালাবাদ থানার এসআই বলেন, মামলা দায়েরের পর আসামিদের ধরতে একাধিকবার অভিযান চালিয়েছি। কিন্তু তাদের পাইনি। এক আসামির বিয়ের খবর শুনে আজকেও অভিযানে গিয়ে তাকে পাইনি। রাতে আবার অভিযানে যাব।

আরো পড়ুন  ঘূর্ণিঝড় রেমাল এর কারনে উপকূলের দেড় কোটি গ্রাহক বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন

এ ব্যাপারে জালালাদ থানার ওসি মিজানুর রহমান কালবেলাকে বলেন, আসামির বিয়ের ব্যাপারে আমার কাছে কোনো তথ্য নেই। এলাকার লোকজন বলছে, পুলিশকে ম্যানেজ করে বিয়ে করছে আসামি- এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ক্ষেপে যান ওসি মিজান।

সর্বশেষ সংবাদ