29 C
Dhaka
Sunday, June 16, 2024

জোর করে বিয়ে, ফিরে আসায় মেয়েকে শিকলে বেঁধে নির্যাতন

বরিশালের এক কিশোরীকে জোর করে বিয়ে দেয়ার পর স্বামীর বাড়ি থেকে ফেরত আসায় অমানবিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে তার মা-বাবার বিরুদ্ধে।

আগৈলঝাড়া উপজেলায় বাগধা ইউনিয়নের দক্ষিণ চাঁদত্রিশিরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ১৩ বছর বয়সী হাবিবা আক্তার নামে ওই কিশোরীকে শিকলে বেধে নির্যাতনের ভিডিও ছড়িয়ে পড়ার পর গত ১ জুন পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

হাবিবার বাবার নাম জামাল হাওলাদার, আর মায়ের নাম মারুফা বেগম। পুলিশ আসার খবর শুনে তারা হাবিবাকে নিয়ে বাড়ি থেকে আত্মীয়ের বাড়ি চলে যান বলে জানা গেছে।

স্থানীয় বাসিন্দা নুরু বাহাদুর ও জামাল তাজ জানান, তিন মাস আগে হাবিবা আক্তারকে তার পরিবার জোর করে একই উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের রাংতা গ্রামের শাহজাহান মোল্লার ছেলে সাজিদ মোল্লার সঙ্গে বিয়ে দেয়। বিয়ের পর স্বামীর ঘরে দুমাস ছিল হাবিবা। একমাস আগে সে দক্ষিণ চাদত্রিশিরা গ্রামে বাবার বাড়ি ফেরত আসে। সে তখন তার মা-বাবাকে জানায়, সে আর স্বামীর সংসারে ফেরত যাবে না। এতে হাবিবার ওপর শুরু হয় নির্যাতন। এরই ধারাবাহিকতায় সর্বশেষ শনিবার রাতে বাবার সহযোগিতায় হাবিবার দুই পায়ে শিকল ও দুহাত পেছনে রশি দিয়ে বেঁধে অমানবিক নির্যাতন করেন মা মারুফা। এসময় হাবিবা চিৎকার করলেও কেউ এগিয়ে যাননি।

আরো পড়ুন  সাজাপ্রাপ্ত হয়েও তিনি পৌর মেয়র

তবে হাবিবাকে মারধরের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়। পরে স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে পুলিশ রাতেই কিশোরী হাবিবাকে উদ্ধার করতে যায়। তবে তার পরিবার টের পেয়ে ঘরে তালা দিয়ে হাবিবাকে নিয়ে পালিয়ে যায়।

যোগাযোগ করলে হাবিবার মা মারুফা বেগম বলেন, আমাদের দরিদ্র পরিবার হওয়ায় মেয়েকে লেখাপড়া করাতে পারছিলাম না, তাই তাকে বিয়ে দিয়ে দেই। স্বামীর বাড়িতে ফিরে না যাওয়ার মেয়েকে শাসন করেছি।

আরো পড়ুন  ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধে সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা আসার পর ব্যবস্থা

হাবিবার বাবা জামাল হাওলাদার দাবি করেন, তার স্ত্রী মারুফা বেগম মেয়ে হাবিবাকে নিয়ে গৌরনদী উপজেলার বাউরগাতী গ্রামে তার বোন জামাইয়ের বাড়ি গেছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাগধা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম বাবুল ভাট্টি বলেন, আমি বিষয়টি জেনে প্রশাসনকে জানিয়েছি। ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের বিচারের দাবি জানাচ্ছি।

আগৈলঝাড়া থানার পরিদর্শক মো. জহিরুল ইসলাম জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে এসআই মাহফুজ হোসেনকে শনিবার রাতেই হাবিবাকে উদ্ধার করতে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়। তবে তার পরিবার টের পেয়ে ঘরে তালা মেরে পালিয়ে যায়।

আরো পড়ুন  সন্ধ্যার মধ্যে তীব্র ঝড়ের আশঙ্কা, হুঁশিয়ারি সংকেত

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফারিহা তানজিন এ ঘটনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন।

সর্বশেষ সংবাদ