29 C
Dhaka
Sunday, June 16, 2024

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ছাত্রলীগ কর্মীকে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় উপজেলা নির্বাচনের বিজয়ী প্রার্থীর আনন্দ মিছিলে গুলিবিদ্ধ হয়ে আয়াশ রহমান এজাজ নামে (২৩) এক ছাত্রলীগের কর্মী নিহত হয়েছেন। বুধবার (৫ জুন) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় পৌর শহরের কলেজপাড়া এলাকার খান টাওয়ারের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত এজাজ কলেজপাড়া এলাকার আমিন মিয়ার ছেলে।

জানা যায়, সন্ধ্যায় শহরের মিশন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কেন্দ্রে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন শোভন বিজয়ী হওয়ার খবর পেয়ে তার সমর্থকরা বিজয় মিছিল বের করে। মিছিলটি কলেজপাড়া এলাকার খান টাওয়ারের সামনে আসলে ছাত্রলীগের কর্মী ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজের উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগের সম্মান দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আয়াশ রহমান এজাজকে মাথায় গুলি করে প্রতিপক্ষের লোকজন।

আরো পড়ুন  চিনি লুট, সিলেটে ছাত্রলীগের দুই ইউনিটের কমিটি বিলুপ্ত

এ সময় এজাজ গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। পরে মিছিলে থাকা তার সহপাঠীরা দ্রুত উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠায়। পথিমধ্যে তার মৃত্যু হয়। এ সময় জেলা সদর হাসপাতাল এলাকায় জেলা ছাত্রলীগের বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী জড়ো হয়। পরে সেখান থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহরের বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে।

আরো পড়ুন  চালক ঘুমিয়ে পড়ায় দোকানে ঢুকে পড়ল লরি, নিহত ২

স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, জেলা ছাত্রলীগ সহসভাপতি হাসান আল ফারাবী জয়ের সঙ্গে ছাত্রলীগের কর্মী এজাজের পূর্ব বিরোধ ছিল। বুধবার সকালে ভোটকেন্দ্রে তাদের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। সন্ধ্যায় বিজয় মিছিল চলাকালে জয় এজাজকে লক্ষ্য করে প্রকাশ্যে গুলি ছুড়ে পালিয়ে যায়।

নিহতের মামাতো ভাই জুনায়েদ চৌধুরী বলেন, উপজেলা নির্বাচনে ঘোড়া প্রার্থীর সমর্থক ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি জালাল উদ্দিন খোকার অনুসারী ছিলেন হাসান আল ফারাবী জয়। মিশন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কেন্দ্রে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন শোভন বিজয়ী হয়। এতে ক্ষুব্ধ হন জালাল উদ্দিন খোকা। বিজয় মিছিল চলাকালে জালালের নেতৃত্বে বেশ কয়েকজন যুবক মোটরসাইকেলে এসে প্রকাশ্যে গুলি ছুড়ে পালিয়ে যায়।

আরো পড়ুন  মৃত্যুর পর রাষ্ট্রীয় সম্মান চান না বীর মুক্তিযোদ্ধা হারিছ মিয়া

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. আরিফুজ্জামান বলেন, এজাজের মাথার বাম পাশের কানের উপরে মারাত্মক একটি ক্ষত রয়েছে। তার সঙ্গে আসা বন্ধুরা জানিয়েছেন তিনি গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ওসি মো. আসলাম হোসাইন বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ওই যুবক গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

সর্বশেষ সংবাদ