30 C
Dhaka
Thursday, July 18, 2024

সরকারি কর্মচারী রোবটের ‘আত্মহত্যা’

কর্মরত অবস্থায় ‘আত্মহত্যা করেছে’ একটি রোবট। কাজ করতে করতে সিঁড়ি থেকে লাফ দিয়ে নিজেকে শেষ করে দিয়েছে রোবটটি। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ কোরিয়ার নর্থ গিয়ংসাংয়ের গুমি এলাকায়।

আরটির প্রতিবেদন মতে, রোবটটিকে গুমি সিটি কাউন্সিলে সরকারি কর্মচারী হিসেবে মোতায়েন করা হয়েছিল। সিটি কাউন্সিল কর্তৃপক্ষ গত বুধবার (২৬ জুন) এক ঘোষণায় জানায়, রোবটটি আত্মহত্যা করেছে।

সিটি কাউন্সিলের একজন কর্মকর্তা জানান, গত সপ্তাহে কাউন্সিল ভবনে ঘটনাটি ঘটে। রোবটটিকে ‘এক জায়গায় ঘুরতে দেখা যায়, যেন এর কোনো সমস্যা হয়েছে। এরপর এটি একটি সিঁড়ির ওপর থেকে দুই মিটার নিচে পড়ে খণ্ড বিখণ্ড হয়ে যায়।

আরো পড়ুন  দেখতে রেললাইন মনে হলেও আসলে এটা সড়ক!

তবে ঠিক কি কারণে সে এমনটা করেছে বা করে থাকতে পারে সে ব্যাপারে এখনও কিছু জানা যায়নি। সিটি কাউন্সিলের ওই কর্মকর্তা বলেছেন, ‘রোবটের কয়েকটি যন্ত্রাশ সংগ্রহ করা হয়েছে। সেগুলো এর প্রস্তুতকারকদের মাধ্যমে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে।

রোববটি বিয়ার রোবোটিক্স নামে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়াভিত্তিক একটি কোম্পানির তৈরি। গত বছরের গত আগস্টে একে গুমি সিটি কাউন্সিলে সরকারি কর্মচারীর দায়িত্বে মোতায়েন করা হয়।

আরো পড়ুন  কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সংবাদ সম্মেলন বয়কট সাংবাদিকদের

রোবটটির নিজস্ব কর্মচারী আইডি কার্ড ছিল। সে সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত কাজ করত। তার কাজ ছিল অফিসের বিভিন্ন নথিপত্র পরিবহন, দর্শনার্থীদের সহায়তা প্রদান এবং শহর সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য প্রচার।

তার মৃত্যুতে সিটি হলের কর্মীরা গভীরভাবে শোকাহত হয়ে পড়েছে। তবে তার জায়গায় নতুন কোনো রোবট মোতায়েনের কোন পরিকল্পনা নেই কাউন্সিল কর্তৃপক্ষের। একজন কাউন্সিল কর্মকর্তা বলেন,
সে সরকারিভাবে সিটি হলের অংশ ছিল, আমাদের একজন সদস্যও। সে কঠোর পরিশ্রম করেছে।

এ ঘটনাকে স্থানীয় গণমাধ্যম দক্ষিণ কোরিয়ার প্রথম ‘রোবট আত্মহত্যা‘ বলে অভিহিত করেছে। তবে বিশ্বে এমন ঘটনা নতুন নয়। এর আগে এমন একটি ঘটনা ঘটেছিল যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে। ২০১৩ সালে পানির ফোয়ারায় ডুবে গিয়েছিল একটি নিরাপত্তা রোবট।

আরো পড়ুন  ১০ হাজার বাংলাদেশিকে দেশে ফেরত পাঠাতে যাচ্ছে যুক্তরাজ্য

ফোয়ারার পানিতে মুখ থুবড়ে পড়ে ছিল স্টিভ নামে রোবটটি। নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত রোবটের এমন বেহালদশা দেখে চারপাশে ভিড় জমান উৎসুক মানুষ। তার এভাবে ডুবে যাওয়াকে অনেকেই ‘আত্মহত্যা’ বলে অভিহিত করেন। তাদের দাবি, একঘেয়েমি পেয়ে বসায় আত্মহত্যা করে বসে ঘর মোছার কাজে ব্যবহৃত রোবটটি।

সর্বশেষ সংবাদ