33 C
Dhaka
Thursday, July 18, 2024

রোগীর পেট কাটতেই বেরিয়ে এল ১২ কেজি ওজনের টিউমার

বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের চিকিৎসকরা মো. কামাল হোসেন নামের এক রোগীর পেট থেকে ১২ কেজি ওজনের টিউমার অপসারণ করেছেন।

রোববার (৩০ জুন) প্রায় সাড়ে ৫ ঘণ্টা অস্ত্রোপচারের মধ্য দিয়ে রেট্রো পেরিটোনিয়াল নামের টিউমারটি অপসারণ করা হয়।

৪৫ বছর বয়সী রোগী মো. কামাল হোসেন সুস্থ আছেন। সফল এই অস্ত্রোপচারের নেতৃত্ব দেন শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ও সার্জারি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. জি. এম. নাজিমুল হক।

রোগীর বড় ভাইয়ের স্ত্রী মৌরিন বেগম জানান, গত দুই বছর পূর্বে পিরোজপুর জেলার স্বরূপকাঠী উপজেলার সোহাগদল গ্রামের রেডিও মেকার হিসেবে পরিচিত মো. কামাল হোসেন পেটে ব্যথা শুরু হয়। তখন অর্থের অভাবে গ্রামের হোমিও চিকিৎসকের পরামর্শ নেন। পরবর্তীতে হোমিও চিকিৎসক তাকে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তির পরামর্শ দেন। গত ২২ জুন তিনি শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের ১নং ইউনিটে অধ্যাপক ডা. ডা. জি. এম. নাজিমুল হকের তত্ত্বাবধানে ভর্তি হন।

আরো পড়ুন  বদলির পর আসবাবপত্র নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ ওসির বিরুদ্ধে

রোগীর খালাতো ভাই মো. জাহিদ হোসেন জানান, শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগে দুই সন্তানের জনক মো. কামাল হোসেনকে ভর্তির পর এখানকার চিকিৎসকরা যত্নসহকারে তার চিকিৎসা কার্যক্রম শুরু করেন। অতঃপর প্রয়োজনীয় ওষুধ ছাড়া প্রায় খরচবিহীন সফল অপারেশন সম্পন্ন হয়েছে। রোগী বর্তমানে অন্য অপারেটিভে আছেন।

শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৫ম তলায় সার্জারি অপারেশন থিয়েটারে এই টিউমারের সফল অস্ত্রোপচারের নেতৃত্ব দেন অধ্যাপক ডা. জি এম নাজিমুল হক। অস্ত্রোপচারের টিমে ছিলেন সহকারী অধ্যাপক ডা. প্রদিব কুমার কর্মকার, সহকারী অধ্যাপক ডা. গ্রিন চন্দ্র বিশ্বাস, সহকারী রেজিস্ট্রার ডা. অনুপ কুমার সরকার ও ডা. মো. হোসাইন শাওন, মেডিকেল অফিসার ডা. মো. বায়েজীদ হোসেনসহ ইন্টার্ন চিকিৎসকরা।

আরো পড়ুন  বোনের সহকর্মীকে ফাঁসাতেই সেই ওসিকে ‘ঘুষ’

সার্জারি বিভাগের ১নং ইউনিটের সহকারী রেজিস্ট্রার ডা. অনুপ কুমার সরকার বলেন, রোগী কামাল হোসেন পেট ফুলা, পেটে ব্যথা, খাবারে অনীহা ও দিনে দিনে ওজন কমে যাওয়া সমস্য নিয়ে ভর্তি হন। তখন তার পেটে সিটি স্ক্যানসহ বিভিন্ন পরীক্ষার মাধ্যমে নিশ্চিত হওয়া যায় তার পেটে বড় সাইজের রেট্রো পেরিটোনিয়াল নামের টিউমার রয়েছে। তখন ৪৫ বছর বয়সী এই রোগীর ওজন ছিল মাত্র ৫০ কেজি। রোগীর কাছে অপারেশনটি ছিল খুবই জটিল। এই অপারেশনে প্রায় সাড়ে ৫ ঘণ্টা সময় লেগেছে।

সার্জারি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. প্রদিব কুমার কর্মকার বলেন, রোববার সকালেই রোগী কামাল হোসেনের অস্ত্রোপচার শুরু হয়। তার পেট কেটে দেখা যায় একটি বড় আকারে টিউমার পেটের চারপাশে ছড়িয়ে আছে। দীর্ঘক্ষণ অপারেশনের পর প্রায় ১২ কেজি ওজনের রেট্রো পেরিটোনিয়াল টিউমারটি অপসারণ করা হয়।

আরো পড়ুন  ঝরনা দেখতে গিয়ে অপহৃত সহোদরসহ ৩, পালিয়ে এলেন এক ভাই

সফল এই অপারেশনের নেতৃত্ব দেওয়া শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজের সার্জারি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. জি এম নাজিমুল হক বলেন, রোগীর পেটের চারপাশে টিউমারটি ছড়িয়ে ছিল। বিশেষ করে তার পেটের ওপরের অংশ থেকে শুরু করে নিচ পর্যন্ত টিউমার বিস্তৃত ছিল। আমরা রোগীর খাদ্যনালি বাঁচিয়ে ১২ কেজি ওজনের বড় আকারের টিউমারটি অপসারণ করেছি। ওই টিউমারটি পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য বায়োপসি টেস্ট করাতে পাঠানো হয়েছে। রোগী বর্তমানে সুস্থ আছেন। বায়োপসি রিপোর্ট আসা পর্যন্ত রোগীর চিকিৎসা চলবে।

সর্বশেষ সংবাদ