27 C
Dhaka
Saturday, July 13, 2024

তিতাস গ্যাসের অফিস সহায়কের ৩ স্ত্রী কারাগারে

কুমিল্লায় অবৈধ সম্পদ অর্জনের দায়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পৃথক মামলায় তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির অফিস সহায়ক জহিরুল ইসলামের তিন স্ত্রীকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদের জরিমানাও করা হয়েছে।

রোববার (৭ জুলাই) বিকেলে কুমিল্লার বিশেষ জজ আদালতের বিচারক বেগম শামসুন্নাহার এ রায় দেন।

দণ্ডাপ্রাপ্তরা হলেন, কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার আনন্দপুর গ্রামের বাসিন্দা জহিরুল ইসলামের প্রথম স্ত্রী সেলিনা আক্তার, দ্বিতীয় স্ত্রী আকলিমা আক্তার ও তৃতীয় স্ত্রী আছমা আক্তার।

আরো পড়ুন  রাসেলস ভাইপার মনে করে পিটিয়ে মারা হলো অজগর

জহিরুল ইসলাম তিনিও মামলায় অভিযুক্ত ছিলেন। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাকে মামলা থেকে খালাস দিয়েছেন আদালত। রায় ঘোষণার সময় জহিরুল ও তার তিন স্ত্রী আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে দণ্ডপ্রাপ্ত তিনজনকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

এর আগে ২০২১ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে জহিরুল ইসলাম ও তার তিন স্ত্রীর নামে মামলা করেন দুদক কুমিল্লা সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আক্তারুজ্জামান।

আরো পড়ুন  সমুদ্র সৈকতে ভেসে আসছে বিষধর সাপ

দুদক কুমিল্লা সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক ফজলুল হক কালবেলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, অবৈধ সম্পদ অর্জনের দায়ে তিতাস গ্যাসের ঢাকা অফিসের অফিস সহায়ক জহিরুল ইসলামের প্রথম স্ত্রী সেলিনা আক্তারকে ৩ বছরের কারাদণ্ড ও ১২ লাখ ১২ হাজার ৩০০ টাকার জরিমানা, দ্বিতীয় স্ত্রী আকলিমা আক্তারকে ৪ বছরের কারাদণ্ড ও ৩৪ লাখ ৩ হাজার টাকার জরিমানা এবং তৃতীয় স্ত্রী আছমা আক্তারকে ৫ বছরের কারাদণ্ড ও ৫১ লাখ ৯৯ হাজার ৮০০ টাকার জরিমানা করা হয়েছে।

আরো পড়ুন  সিলেট আবারো সব পর্যটন স্পট বন্ধ ঘোষণা

তিনি বলেন, একই সঙ্গে আসামিদের জরিমানার টাকা রাষ্ট্রের কোষাগারে জমা করার আদেশ দেন আদালত। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় মামলা থেকে জহিরুল ইসলামকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ