29 C
Dhaka
Thursday, June 20, 2024

সাত বছর ধরে বিদ্যুৎ বিল দেয় না পৌরসভা

পিরোজপুরের মঠবাড়ীয়া পৌরসভার বিদ্যুৎ বিল ৭ বছরে অর্ধকোটি টাকা বকেয়া থাকায় সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি।

জানা যায়, মঠবাড়ীয়া পৌরসভার কাছে ৫৬ লাখ ৫৮ হাজার ৫৩০ টাকা বিদ্যুৎ বিল পাওনা রয়েছে পিরোজপুর পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি মঠবাড়ীয়া জোনাল অফিসের। পৌরসভার মূল ভবন, পানি পরিশোধনাগার, বহুমুখী বাজার ও সড়ক লাইনসহ বিদ্যুৎ সংযোগের অন্তত ১১টি হিসাব নম্বর রয়েছে।

এসব হিসাব নম্বরের কোনোটিতেই ২০১৭ সাল থেকে নিয়মিত বিল পরিশোধ না করায় সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে মঠবাড়ীয়া জোনাল অফিস। এর প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার (১৪ মে) সকাল ৯টার দিকে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। তবে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আবেদনের প্রেক্ষিতে পুনরায় সংযোগ চালু করা হয়।

আরো পড়ুন  চাপ নেই ভোটারের, ফেসবুক-রিলস দেখে সময় কাটাচ্ছেন পোলিং অফিসার

মঠবাড়ীয়া পৌরসভা ও পল্লীবিদ্যুতের মঠবাড়ীয়া জোনাল অফিস কর্মকর্তারা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পল্লীবিদ্যুতের মঠবাড়িয়া জোনাল অফিস সূত্রে জানা গেছে, পৌরসভার কয়েকটি সংযোগ বাবদ প্রতি মাসে প্রায় ৩-৪ লাখ টাকা বিদ্যুৎ বিল আসে। সংযোগগুলোর বিপরীতে পৌরসভার হিসাব নম্বরে ৫৬ লাখ ৫৮ হাজার ৫৩০ টাকা বকেয়া পড়েছে। নোটিশ করার পরও বছরের পর বছর ধরে পৌর কর্তৃপক্ষ বকেয়া বিল পরিশোধ না করায় এ ব্যবস্থা নিয়েছে।

আরো পড়ুন  নানার ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা নাতনি

পৌর নির্বাহী কর্মকর্তা হারুন অর রশিদ জানান, পৌরসভার বিদ্যুৎ বিল ২০১৭ সাল থেকে বকেয়া চলে আসছে। বকেয়া বিলের কিছু পরিশোধ করে সংযোগ চালুর ব্যবস্থা করা হয়েছে। আমরা ছয় মাসের বিভিন্ন সময় বকেয়া বিলসহ ৩০ লাখ ৩ হাজার ২৭৩ টাকা পরিশোধ করেছি।

মঠবাড়ীয়ার জোনাল অফিসের ডিজিএম মোতালেব হোসেন বলেন, অর্ধ কোটি টাকারও বেশি বকেয়া রয়েছে। পৌর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আমাদের আলোচনা হয়েছিল। তখন বলা হয় সম্মানজনক একটা বিল তারা পরিশোধ করবেন। কিন্তু এতে তারা ব্যর্থ হয়েছেন। তাই বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

আরো পড়ুন  ছাত্রী মেসে গোপনে গোসলের ভিডিও ধারণের অভিযোগ
সর্বশেষ সংবাদ