31 C
Dhaka
Sunday, July 21, 2024

‘সাইকেল চাই না, বাবার লাশটা দেন’

‘মাদরাসায় যেতে বাবার কাছে সাইকেল চেয়েছিলাম, কিনেও দিতে চেয়েছিলেন। সৌদি আরবে বাবা মারা গেছেন, আমার সাইকেল লাগবে না। আমি শুধু বাবার মুখখানা শেষবারের মতো দেখতে চাই। আমার বাবার লাশটা দেশে এনে দিন।’

সোমবার (২৪ জুন) বিকালে এভাবেই শেষবারের মতো বাবার মুখটা দেখার জন্য আহাজারি করতে করতে কথাগুলো বলছিলেন নিহত প্রবাসী মিলন মাতুব্বরের (৩৫) ছেলে আবির মাতুব্বর (৯)।

জানা গেছে, মাদারীপুরের পশ্চিম খৈয়ার ভাঙ্গা গ্রামের সিরাজুল হক মাতুব্বরের ছেলে মিলন পরিবারে সচ্ছলতা ফেরাতে পাঁচ বছর আগে সৌদি আরবে যান। দেশটির রাজধানী রিয়াদের হালুজারায় কাজ করতেন তিনি। সেখান থেকে পরিবারের খরচের জন্য টাকা পাঠাতেন। গত ১৮ জুন রাতে সেখানেই ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হলে তার সহকর্মীরা তাকে রিয়াদের একটি হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে রোববার চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। এ খবর শোনার পর থেকে তার বাড়িতে চলছে শোকের মাতম।

আরো পড়ুন  কামড় খেয়ে সাপ নিয়েই হাসপাতালে হাজির কৃষক

আবির বলছিলেন, ‘আমি বড়। আমার ছোট দুই ভাই ও মা আছে। এখন আমরা কীভাবে বাঁচব। পড়াশোনার খরচ কে দেবে? আমাদের দেখার মতো কেউ নেই।’

নিহত মিলনের স্ত্রী বলেন, আমাদের দেখার মতো কেউ রইলো না। আমাদের তিন শিশু সন্তানকে এখন কে দেখবে? আমরা প্রায় ২০ লাখ টাকার দেনা। এই দেনা কীভাবে শোধ করবো। আমার স্বামীর লাশটা দেখতে চাই। কিন্তু সৌদি থেকে টাকা খরচ করে লাশ দেশে আনার সামর্থ্য আমাদের নাই। সরকারের কাছে দাবি আমার স্বামীর লাশটা যেন দেশে আনার ব্যবস্থা করে দেন।

আরো পড়ুন  ঘুষকাণ্ডের প্রতিবাদ করায় স্ত্রীকে তালাক দেন প্রকৌশলী, অতঃপর...

মিলনের মা-বাবাও শেষ বারের মতো সন্তানের লাশ দেখতে একইভাবে সবার কাছে আকুতি জানান।

এ বিষয়ে মাদারীপুর জেলা প্রশাসক মারুফুর রশিদ খান বলেন, ‘আমাদের কাছে আবেদন করলে আমরা ঢাকায় যোগাযোগ করে লাশটি দেশে আনার চেষ্টা করবো। আবেদন করলে স্থানীয়ভাবে তাদের সহযোগিতা করা হবে।’

সর্বশেষ সংবাদ