30 C
Dhaka
Thursday, July 18, 2024

৪৫ দিনে ৫ বার সাপে কাটে তরুণকে, হতবাক চিকিৎসকরা যা বললেন

মাত্র ৪৫ দিনের মধ্যে পাঁচটি সাপের কামড় খেয়েও ‘অলৌকিকভাবে’ বেঁচে রয়েছেন এক তরুণ। প্রতিবার চিকিৎসার পর তিনি দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠেন। এমন ঘটনায় অবাক হয়েছেন খোদ চিকিৎসকরাও। ওই তরুণ ভারতের উত্তরপ্রদেশের ফতেহপুরে বাসিন্দা। খবর ইন্ডিয়া টুডের। প্রতিবেদনে বলা হয়, বিকাশ দুবে নামের ওই তরুণ সাপের কামড় এড়াতে নিজের বাড়ি ছেড়ে আত্মীয়ের বাড়িতে গিয়ে উঠেন। তবে সেখানেও দুটি সাপ তাকে ছোবল মারে।

নিজের শোবার ঘরে বিছানা ছেড়ে ওঠার সময় গত ২ জুন রাতে প্রথমবার বিকাশকে সাপে ছোবল দেয়। পরিবারের সদস্যরা তাকে একটি বেসরকারী নার্সিংহোমে নিয়ে যান, যেখানে দুই দিন ভর্তি থাকার পর বাড়িতে ফেরেন তিনি। এটাকে স্বাভাবিক ঘটনা বলেই মনে করেছিলেন তারা। কয়েকদিন পর ১০ জুন রাতে বিকাশকে ফের সাপে কাটে। তার পরিবার তাকে একই স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করে এবং চিকিৎসা শেষে তিনি দ্রুত বাড়ি ফিরে আসেন। তবে এবার তার মনে সাপের ভয় বাসা বাধে এবং তিনি সতর্ক হতে শুরু করেন।

আরো পড়ুন  সমকামিতা-অনৈতিক সম্পর্ক, আফগানিস্তানে ৬৪ জনকে প্রকাশ্যে বেত্রাঘাত

ঘটনার সাতদিন পর, ১৭ জুন বিকাশকে তৃতীয়বারের মতো নিজ বাড়িতে একটি সাপ কামড় দেয়। এ সময় তিনি সংজ্ঞা হারিয়ে ফেলেন। একই স্বাস্থ্যকেন্দ্র নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে তার চিকিৎসা করা হয় এবং তিনি দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠেন।

এরপর চতুর্থ দফায় ওই তরুণকে সাপে দংশন করে। সেই সময় চিকিৎসার জন্য সেই স্বাস্থ্যকেন্দ্রে গেলে এবার অবাক হয়ে যান চিকিৎসকরাও। অবশ্য তাকে চিকিৎসা দেয়া হয় এবং সেবারও প্রাণে রক্ষা পান তরুণ।

আরো পড়ুন  কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষে এবার কথা বললেন দাউদ কিম

এসব ঘটনার পর বিকাশ দুবের আত্মীয় ও চিকিৎসকরা তাকে কয়েকদিন বাড়ি ছেড়ে দূরে কোথাও থাকার পরামর্শ দেন। তাদের পরামর্শে ফতেপুরের রাধা নগরে খালার বাড়িতে চলে যান দুবে। তবে সেখানেও বাড়ির ভেতর পঞ্চমবার তাকে সাপে কাটে তরুণকে।

ওই তরুণকে প্রতিবার সাপে কামড়ানোর চিকিত্সা করেছিলেন ডা. জওহর লাল। তিনি এ ঘটনাকে ‘অদ্ভুত’ বলে অভিহিত করেছেন। পঞ্চমবার সাপের কামড় খাওয়ার পরও বিকাশ দুবের অবস্থা এখন স্থিতিশীল বলে জানা গেছে। তবে তাকে ছোবল দেয়া সাপগুলো বিষধর ছিল কিনা, তা স্পষ্ট করা হয়নি।

আরো পড়ুন  কুকুরের ঘেউ ঘেউ-এর অর্থ বলে দেবে এআই
সর্বশেষ সংবাদ